অটোগ্রাফ অনুগল্প – সুরাইয়া নুর

অটোগ্রাফ
অনুগল্প:-সুরাইয়া নুর

হাল্কা পেস্ট রংয়ের জামদানী শাড়িতে,খোলা চুলের একপাশে বেলি ফুল জড়িয়ে বইমেলা প্রাঙগনের স্টল নং -৪২০ এ দাঁড়িয়ে অটোগ্রাফ দিচ্ছিল নীলাদ্রি।

পেস্ট রঙের কাচের চুরির টুংটাং আওয়াজ আর দখিনা হাওয়ায় চুলগুলো বার বার চোখের উপরে এসে খেলা করেই যাচ্ছে। উড়ন্ত চুলের খেলায় চুড়িগুলোর টুংটাং আওয়াজ গুলো যেন ইচ্ছে করেই এক সুরের প্রতিধ্বনির সৃষ্টি করছে।

হুট করে পেছন থেকে খুব চেনা একটি  কন্ঠস্বর কানে ভেসে উঠল…অটোগ্রাফ পেতে পারি??

কন্ঠস্বরটি শুনে চমকিয়ে উঠল, এ কন্ঠস্বরটির সাথে তার পরিচয় হয়েছিল তিন বছর আগে এক বসন্ত বিকেলে…বকুলতলার নিচে।

দুর্জয়!! ও এখানে কেন?দুর্জয়ের বন্ধুর অপ্রাসঙ্গিক  মিথ্যা কথার জের ধরে মনোমালিন্য হয়ে প্রায় এক বছর ধরে নীলাদ্রির দুর্জয়ের সাথে  যোগাযোগ নেই।

__ম্যাম,অটোগ্রাফ কি দেয়া যাবে? বইটা এগিয়ে দিয়ে….

__সবুজ রঙের কালিতে গোটা গোটা অক্ষরে বইয়ের প্রথম পাতায়… 

“হঠাৎ এই অবেলায় আগমন” লিখে বইটা দুর্জয়ের হাতে ধরিয়ে দিতেই দেখল সেই ধূসর রঙের পাঞ্জাবি, যেটা পড়ে তার সাথে লাস্ট দেখা করেছিল। দুর্জয়কে এমন দেখাচ্ছে কেন? খোঁচা খোঁচা দাঁড়ি,শুকনো মুখ।খুব ক্লান্ত মায়াবী লাগছে।

__তোমাকে এমন দেখাচ্ছে কেন?এ কথা বলে  তাকাতেই দেখল দুর্জয়ের হাতে ক্র্যাচার…একি?এ অবস্থা কিভাবে হলো? তোমার পায়ে কি হয়েছে?
___ও কিছু না..এক্সিডেন্টে পায়ের আংগুল ফেটে এমন হয়েছে। এগুলো কর্মফল..তোমার মনে কস্ট দিয়েছি না এমন তো হবেই।
নীলাদ্রি আমার উপর এখন ও  এত অভিমান নিয়ে থাকবে?আমাকে কি মাফ করা যায় না?

____নীলাদ্রির চোখ ছলছল করছে।কিছুনা বলে দুর্জয়ের হাত ধরে হাটা শুরু করল।

অটোগ্রাফ অনুগল্প সুরাইয়া নুর dorbinnews24
সুরাইয়া নুর

লিখেছেনঃ সুরাইয়া নুর

Leave a Reply