কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ার কারণে গৃহবধূ পেলেন তালাক নামা।

কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ার কারণে গৃহবধূ পেলেন তালাক নামা।

দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,Bangla News, bangla News paper,Bangla All News paper List,bangla khobor,Bollywood,hindi movie,new movie 2021,tamil movie দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,how to earn money online without investment,how to make money online in nigeria,how to earn money online with google,how to earn money online without paying anything,how to earn money online for students,how to earn money online in india,how to earn money online in bangladesh,how to earn money online philippines,how to make money online for free


গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের রোকসানা খাতুন (২৩) নামে এক গৃহবধূ বিয়ের এক বছরে তাকে উপহার দিতে না পারায় ছেলের সাথে তালাক দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শ্বশুরবাড়ি একটি মেয়ে জন্ম দেওয়ার চার দিন পরে নবজাতকের সাথে গৃহবধূকে তাড়িয়ে দেয়। ৯৯৯-এ কল পাওয়ার পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নবজাতকসহ গৃহবধূকে উদ্ধার করে। পরে পুলিশ তাকে তার বাবার বাড়িতে প্রেরণ করে।

বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার নলডাঙ্গা ইউনিয়নের ঘোমামারা গ্রাম থেকে একটি নবজাতক ও এক গৃহবধূকে উদ্ধার করেছে। রোকসানা উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের ধনিয়ায়ারকুড়া গ্রামের লুৎফর মিয়ার কন্যা।স্থানীয় ও গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা যায়, সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্ববানন্দ ইউনিয়নের ধনিয়ায়ারকুড়া গ্রামের লুৎফর মিয়ার কন্যা রোকসানা সাদুল্যাপুর উপজেলার ঘোড়ামারা গ্রামের মোহাব্বার আলীর ছেলে রাজা মিয়ার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। 

আড়াই মাস আগে তার স্বামী রাজা মিয়া চিকিত্সা পরীক্ষার পরে বুঝতে পেরেছিলেন যে রোকসানা একটি বাচ্চা মেয়ে প্রসব করতে চলেছে। এর পর থেকে তার স্বামীসহ তার শ্বশুর-শাশুড়িরা তাকে নির্যাতন শুরু করে। রোকসানা গত ৮ ই মার্চ একটি বেসরকারি হাসপাতালে একটি শিশু কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি ঘোড়ামারায় স্বামীর বাড়িতে ফিরেছিলেন।অভিযোগ করা হয়েছিল যে রোকসানাকে তখন স্বামীর বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। বিকেলে রোকসানার শাশুড়ি তাকে জানায় যে তিন মাস আগে তার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে। 

সন্ধ্যায়, পুলিশ রোকসানার ৯৯৯ নম্বরে ফোন পেয়ে নবজাতকের সাথে তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে। পরে পুলিশ তাকে সুন্দরগঞ্জের বাবার বাড়িতে প্রেরণ করে।বছর কয়েক আগে রোকসানার স্বামী রাজা মিয়া তার প্রথম স্ত্রীকে তালাক দিয়েছিলেন। তারপরে স্ত্রী তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে যৌতুক মামলা দায়ের করেন। মামলাটি বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

রোকসানা খাতুন বলেছিলেন, ‘যখন তারা শিশু পরীক্ষায় জানতে পারেন যে একটি মেয়ে। এখন তারা বলছে, মেয়ে না তাদের না।”এই চার দিনের মেয়েটির সাথে এখন আমি কোথায় যাচ্ছি,” তিনি বলেছিলেন। আমার বাবার বাড়িতে কোনও সম্পদ নেই। আমি এই ঘটনার জন্য সুষ্ঠু বিচার চাই।

রোকসানার শ্বশুর মোহাব্বার আলী বলেছিলেন যে বন্ধুরা সময়ে সময়ে তাঁর স্ত্রীর কাছে আসে। স্ত্রীর চরিত্র খারাপ তাই আমার ছেলে তিন মাস আগে তাকে তালাক দিয়েছিল।সাদুল্যাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা জানান, পুলিশ রোকসানাকে নবজাতকের সাথে উদ্ধার করে বাবার বাড়িতে রাখে। এ বিষয়ে এখনও কোনও লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। কোনও অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুনঃ ফেসবুক থেকে কীভাবে উপার্জন করবেন

Leave a Reply