মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনরত নেতা-কর্মীদের সরিয়ে দিয়েছে পুলিশ।

মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনরত নেতা-কর্মীদের সরিয়ে দিয়েছে পুলিশ।

দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,Bangla News, bangla News paper,Bangla All News paper List,bangla khobor,Bollywood,hindi movie,new movie 2021,tamil movie দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,how to earn money online without investment,how to make money online in nigeria,how to earn money online with google,how to earn money online without paying anything,how to earn money online for students,how to earn money online in india,how to earn money online in bangladesh,how to earn money online philippines,how to make money online for free
রাজধানীর শাহবাগে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনরত নেতা-কর্মীদের জলকামান থেকে পানি নিক্ষেপ করে সরিয়ে দেয় পুলিশ। ছবি: প্রথম আলো


মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনরুদ্ধারের দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ থেকে নেতাকর্মীদের অপসারণ করেছে পুলিশ। এ সময় লাঠিচার্জ ও জলকামান নিক্ষেপ করা হয় তাদের দিকে। তবে পুলিশ দাবি করেছে যে তাদের মারধর করা হয়নি।

সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধাদের ৩০ শতাংশ কোটা পুনঃস্থাপনসহ সাত দফার দাবিতে মঙ্গলবার রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধার সোনান সংসদ নামে সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সন্ধ্যার আগে পুলিশ লাঠিচার্জ ও জলের কামান দিয়ে তাদের সরিয়ে দেয়।


আজ বেলা সোয়া বারটার দিকে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে কয়েকশ মুক্তিযোদ্ধা পুত্র ও সংসদ সদস্য শাহবাগ মোড়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। বিক্ষোভের ফলে দিনব্যাপী শাহবাগের আশপাশে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।


কর্মসূচিতে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সোনতান সংসদের চেয়ারম্যান সোলমান মিয়া ও মহাসচিব শফিকুল ইসলাম সহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। শুরুতেই পুলিশ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র সংসদের নেতাকর্মীদের শাহবাগ ত্যাগ করতে বলে। তবে তারা পুলিশের নির্দেশনা উপেক্ষা করে কর্মসূচি চালিয়ে যায়। বেলা সাড়ে ৫ টায় পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিপেটা ও জলের কামান নিক্ষেপ করে।

পুলিশি বাধার নিন্দা জানিয়ে মুক্তিযোদ্ধার সোনতান সংসদের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান বলেন, সরকার দাবি পূরণের ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন চলবে।
শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মামুন অর রশিদ বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের বাচ্চাদের লাঠিপেটা করা হয়নি। তিনি বলেন, জনগণের দুর্ভোগ লাঘব করার জন্য, আমরা বাঁশি ও জল দিয়ে তাদের সরিয়ে দিয়েছি।

মুক্তিযোদ্ধার শিশু সংসদের অন্যান্য দাবী হ’ল: বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারকে রক্ষার জন্য সাংবিধানিক স্বীকৃতি এবং আইন পাস, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নির্বাচনে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারের প্রতিনিধি নির্বাচন করা এবং ১৯৭২ সালে সংজ্ঞায়িত মুক্তিযোদ্ধাদের একটি চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করা; মুজিব কোর্টের পবিত্রতা রক্ষার জন্য সিনেমা, সিরিয়াল, খারাপ চরিত্রের নাটক এবং মুজিব কোর্ট পরা খারাপ লোকদের সুযোগ বন্ধে মুজিব কোর্ট পরা নিষিদ্ধ করার আইন পাস হয়েছে; মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের পরিত্যক্ত সম্পত্তিকে একটি লাভজনক সংস্থায় রূপান্তর করা; মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও জমি দখলের উপর হামলা ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ; দুর্নীতি, মাদক ও ধর্ষণবিরোধী অভিযান অব্যাহত রাখা, কঠোর আইন প্রণয়ন সহ হাসপাতাল, সরকারী অফিস এবং বিমানবন্দরসহ সব জায়গায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভিআইপি মর্যাদা প্রদান সহ।

 

আরো পড়ুন :Digital Marketing কী এবং এটি আপনার Business জন্য কেন গুরুত্বপূর্ণ?

সূত্র :প্রথম আলো

Leave a Reply