করোনা পরবর্তী কিছু জটিলতায় ভুগছেন খালেদা জিয়া

করোনা পরবর্তী কিছু জটিলতায় ভুগছেন খালেদা জিয়া

দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,Bangla News, bangla News paper,Bangla All News paper List,bangla khobor,Bollywood,hindi movie,new movie 2021,tamil movie দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,how to earn money online without investment,how to make money online in nigeria,how to earn money online with google,how to earn money online without paying anything,how to earn money online for students,how to earn money online in india,how to earn money online in bangladesh,how to earn money online philippines,how to make money online for free
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

বিএনপি চেয়ারপারসন ও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া করোনার পরে কিছু জটিলতায় ভুগছেন। একটি দায়িত্বশীল সূত্র মতে, খালেদা জিয়ার ফুসফুস থেকে তরল অপসারণ করা হয়েছে। তাঁর ডায়াবেটিস পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে নেই। এর স্তরগুলি ওঠানামা করছে। এ ছাড়া অক্সিজেনের মাত্রা কিছুটা কমেছে। চিকিত্সকরা কী বলছেন জানতে চাইলে সূত্রটি বলেছিল যে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিরা সুস্থ হওয়ার পরে এই কয়েকটি জটিলতায় ভুগছেন। তবে খালেদা জিয়া বয়স্ক। সে কারণেই চিকিৎসকরা বিষয়টি নিয়ে গভীর নজর রাখছেন। 

ফুসফুস থেকে যে তিন ব্যাগ তরল বেরিয়েছিল তা পরীক্ষা করা হয়েছিল। অন্য কোনও রোগজীবাণু সেখানে পাওয়া যায় নি। সূত্রমতে, চিকিত্সকরা বলেছিলেন যে করোন থেকে উদ্ধার হওয়া তরুণদের ক্ষেত্রে এই জটিলতাগুলি এতটা নয়। খালেদা জিয়ার বয়স বেশী হওয়ায় চিকিৎসকরা জটিলতাগুলি দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছেন। কিছু নতুন ওষুধও দেওয়া হচ্ছে। খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক জানান, বিএনপি চেয়ারপারসনের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে পরিবারকে অবহিত করা হয়েছে। দলকে অবহিত করা হয়েছে। আপাতত তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হবে। 

খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে চিকিত্সক বলেছেন যে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠার পরে প্রায় সকলেই কিছু না কিছু বা অন্য জটিলতায় ভুগেছে, যাকে বলা হয় ‘পোস্ট কোভিড জটিলতা’। খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে। সে বৃদ্ধ. ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি অসুস্থতা রয়েছে। চিকিৎসক আরও যোগ করেছেন, “আমরা আশা করি তিনি এ পর্যন্ত তার শারীরিক অবস্থা থেকে সুস্থ হয়ে উঠবেন।” ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে করোনার দ্বারা আক্রমণ করা হয়েছিল। ২৮ এপ্রিল তাকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। 

শ্বাসকষ্টের কারণে গত সোমবার খালেদা জিয়াকে কেবিন থেকে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) স্থানান্তরিত করা হয়। তিনি এখনও সেখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। মঙ্গলবার বিএনপির এক মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, খালেদা জিয়া ভাল আছেন। তাঁর অক্সিজেন লাগছে। বুধবার বিএনপিপন্থি এক চিকিৎসক জানিয়েছেন, খালেদা জিয়া অক্সিজেন দেওয়ার পাশাপাশি স্বাভাবিকভাবে শ্বাস নিতে পেরেছিলেন। 

যাইহোক, সেই ক্ষেত্রে অক্সিজেনের স্তরটি কখনও কখনও ৯০ বা নীচে নেমে যায়। যখন অক্সিজেন দেওয়া হয়, তখন এর মাত্রা ৯৯ পর্যন্ত থাকে, তাকে দিনে দুই থেকে চার লিটার অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। যদি এটি কয়েক দিন অব্যাহত থাকে তবে তারা আশাবাদী যে কয়েক দিনের মধ্যে শ্বাসকষ্ট হবে না।

অবশ্যই পরবেন:

Leave a Reply