দেশে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু একদিকে বাড়ছে, অন্যদিকে কমছে করোনা টিকাগ্রহীতার সংখ্যা।

বাড়ছে সংক্রমণ, কমছে টিকা গ্রহণ

দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,Bangla News, bangla News paper,Bangla All News paper List,bangla khobor,Bollywood,hindi movie,new movie 2021,tamil movie দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,how to earn money online without investment,how to make money online in nigeria,how to earn money online with google,how to earn money online without paying anything,how to earn money online for students,how to earn money online in india,how to earn money online in bangladesh,how to earn money online philippines,how to make money online for free
হাসপাতালগুলোতে বেড়েছে করোনা রোগীর চাপ। বয়োজ্যেষ্ঠ রোগীদের ক্ষেত্রে লাগছে অক্সিজেন। আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতালে। ছবি: আশরাফুল আলম

দেশে করোনার সংক্রমণ এবং মৃত্যু বৃদ্ধি পাচ্ছে, অন্যদিকে করোনার ভ্যাকসিনেটর সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে। চিকিত্সকরা বলছেন করোনার বিরুদ্ধে প্রথম সরঞ্জামটি ভ্যাকসিন। তবে, কেবল টিকাদানই নয়, যথাযথ স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলতে হবে।৯ ই ফেব্রুয়ারি থেকে দেশে সবচেয়ে কম সংখ্যক লোক করোনার বিরুদ্ধে টিকা প্রদান করেছে। আজ, সারা দেশে ৮৭ হাজার ৮৬০ জনকে এই টিকা দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে আজ ঢাকায় ১৫,৯৮৪ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে।

আজ সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য বিভাগের স্বাস্থ্য জরুরী কেন্দ্র এবং নিয়ন্ত্রণ বিভাগ থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে।গণ টিকা দেওয়ার প্রচারণা শুরুর দিকে করোনার ভ্যাকসিনের জন্য রেজিস্ট্রেশন এবং প্রতিদিনের টিকা দেওয়ার সংখ্যা কম ছিল। তবে, টিকা শুরু করার সময় এই সংখ্যাটি বাড়তে শুরু করে। টিকা দেওয়ার দ্বিতীয় সপ্তাহে, প্রতিদিনের টিকা দেওয়ার সংখ্যা ২৩০,০০০ ছাড়িয়েছে। তখন দৈনিক নিবন্ধন ছিল প্রায় আড়াই লাখ। তবে তিন সপ্তাহ ধরে দেশে করোনার ভ্যাকসিনের সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে। 

টিকা দেওয়ার জন্য নিবন্ধনও কম হচ্ছে।৭ ফেব্রুয়ারি দেশে গণ টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। এ পর্যন্ত দেশজুড়ে করোনার বিরুদ্ধে ৪৪ লক্ষ ৮৫ হাজার ৯৫৪ জন টিকা প্রদান করেছেন। এর মধ্যে ২৮ লাখ ৪৪ হাজার ৩৫৫ জন পুরুষ এবং ১৬ লক্ষ ৪১ হাজার ৫৯৯ জন মহিলা।চিকিত্সকরা বলছেন যে চারটি সরঞ্জাম দিয়ে করোনার মোকাবেলা করা সম্ভব। করোনার টিকা, নিয়মিত মুখোশ পরা, বাইরে যাওয়ার সময় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা এবং নিয়মিত হাত ধোয়া এবং নির্বীজন করা।

আরও পড়ুন: TikTok দিয়ে কীভাবে অর্থ উপার্জন করবেন

করোনার ভ্যাকসিন মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলবে। তবে ভ্যাকসিনের পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর নিয়ম অবশ্যই মেনে চলতে হবে।সোমবার সকালে রাজধানীর মুগদা হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেল, হাসপাতালের তৃতীয় তলায় করোনার টিকা কেন্দ্রের সামনে খুব বেশি ভিড় ছিল না। টিকা দেওয়ার জন্য আসা লোকদের নিবন্ধনের বিষয়টি প্রথমে যাচাই করা হচ্ছে। তারপরে এটি সিরিয়ালের সাহায্যে ঢোকানো হচ্ছে। আধ ঘন্টা পর্যবেক্ষণ শেষে, ভ্যাকসিনেটরগুলি ছেড়ে দেওয়া হয়।

আজ মুগদা হাসপাতালে করোনার বিরুদ্ধে ৮৫৪ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে তবে দু’সপ্তাহ আগেও এই হাসপাতালে প্রতিদিন ১,১০০ থেকে ১,২০০ লোক করোনার ভ্যাকসিন পেতেন।স্বাস্থ্যবিধি নিয়ম অনুসরণ করা আবশ্যক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন উপাচার্য ও ভাইরোলজিস্ট নজরুল ইসলাম বলেছেন, মানুষের মুখোশ পরার প্রবণতা খুব কম। 

তিনি বলেছিলেন, করোনার সাথে আচরণে স্বাস্থ্যবিধি নিয়ম মেনে চলা একেবারে মৌলিক। যদি ব্যক্তিগত সুরক্ষাকে সম্মান না করা হয় তবে লোকেরা করোনায় আক্রান্ত হবে। টিকা দেওয়ার পরেও এ জাতীয় ঘটনা দেখা যায়। একটি মুখোশ না পরে এবং স্বাস্থ্যবিধি নিয়ম না অনুসরণ করা বোকামি।মুগদা হাসপাতাল করোনার শুরু থেকেই কোভিড চিকিত্সা করছিল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মতে, হাসপাতালে ১৪ টি নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট (আইসিইউ) রয়েছে। গতকাল একটি বিছানাও খালি ছিল না। 

আইসিইউ খালি না থাকায় জরুরি পরিষেবাগুলিতে রোগীদের হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে ফিরিয়ে দিতে হবে। গত দু’সপ্তাহে করোনার রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে উল্লেখ করে মুগদা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে আজ এখানে ১৫৩ জন করোনার রোগী চিকিত্সা করা হচ্ছে। তবে দু’সপ্তাহ আগে সেখানে ৬০ থেকে ৭০ জন রোগী ছিলেন।চিকিত্সকরা বলছেন যে চারটি সরঞ্জাম দিয়ে করোনার মোকাবেলা করা সম্ভব। করোনার টিকা, নিয়মিত মুখোশ পরা, বাইরে যাওয়ার সময় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা এবং নিয়মিত হাত ধোয়া এবং নির্বীজন করা। 

করোনার ভ্যাকসিন মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলবে। তবে ভ্যাকসিনের পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর নিয়ম অবশ্যই মেনে চলতে হবে।করোনাকে চারটি অস্ত্র দিয়ে মোকাবেলা করা যেতে পারে। শুধু টিকা দিন না, এটি এর মতো নয়। এটি বলা নিরাপদ যে টিকা নিরাপদ। তবে, টিকাটি নিজের এবং দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। টিকাদান রোগের তীব্রতা হ্রাস করতে পারে।অসীম কুমার নাথ, মুগদা হাসপাতালের পরিচালক মুগদা হাসপাতালের পরিচালক অসীম কুমার নাথ বলেছিলেন যে এই চারটি অস্ত্র নিয়ে কাজ করা সম্ভব হয়েছিল।

আরও পড়ুন: কীভাবে ঘরে বসে ইন্টারনেট থেকে অর্থ উপার্জন করবেন

শুধু টিকা দিন না, এটি এর মতো নয়। এটি বলা নিরাপদ যে টিকা নিরাপদ। তবে, টিকাটি নিজের এবং দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। টিকাদান রোগের তীব্রতা হ্রাস করতে পারে।১৪ ফেব্রুয়ারি অবধি গণ টিকা কার্যক্রম শুরুর পর থেকে প্রতিদিন গড়ে ১ লক্ষ ২৯ হাজার ৩৫২ জন করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন। এ সময়, টিকা দেওয়ার জন্য প্রতিদিন ১ লাখ ৮৬ হাজার ২৬ জন নিবন্ধন করেন।১৫ থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন গড়ে ২ লক্ষ ৩৩ হাজার ৬৮৭ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছিল। 

এ সময়, টিকা দেওয়ার জন্য প্রতিদিন ২ লক্ষ ৪৫ হাজার ৯৮৫ জন নিবন্ধন করেন। দেশে এখন পর্যন্ত সর্বাধিক সংখ্যক টিকা দেওয়া হয়েছে ১৮ ফেব্রুয়ারি। এদিন করোনার বিরুদ্ধে মোট ২ লাখ ৬১ হাজার ৯৪৫ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছিল।২৩ শে ফেব্রুয়ারি থেকে ২ মার্চ পর্যন্ত টিকা এবং নিবন্ধকরণ উভয়ই হ্রাস পেতে শুরু করে। ২৩ শে ফেব্রুয়ারি থেকে প্রতিদিন গড়ে ১ লাখ ৪৮ হাজার ১২৮ জন টিকা প্রদান করেছেন। বর্তমানে প্রতিদিন ১ লাখ ১০ হাজার ৪৮১ জন নিবন্ধন করেছেন।

 

দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,Bangla News, bangla News paper,Bangla All News paper List,bangla khobor,Bollywood,hindi movie,new movie 2021,tamil movie দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,how to earn money online without investment,how to make money online in nigeria,how to earn money online with google,how to earn money online without paying anything,how to earn money online for students,how to earn money online in india,how to earn money online in bangladesh,how to earn money online philippines,how to make money online for free
করোনায় আক্রান্ত বাবা কার্তিক বর্মণের যত্ন নিচ্ছেন তাঁর সন্তান দিপু বর্মণ। গত কয়েক দিনে করোনা রোগী বেড়েছে হাসপাতালগুলোতে। আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতালে। ছবি: আশরাফুল আলম

২৬ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার ছুটির কারণে টিকা ক্যাম্পেইগ কার্যক্রম চলেনি।ঢাকাসহ সারাদেশে এক হাজারেরও বেশি হাসপাতালে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে।বেশিরভাগ হাসপাতাল একাধিক বুথে ভ্যাকসিন দিচ্ছে। প্রতিটি বুথে দিনে ১৫০ থেকে ২০০ জনকে টিকা দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে। কোনও হাসপাতালে এক দিনে কত লোককে টিকা দেওয়া হবে তা বুথের সংখ্যার উপর নির্ভর করে।ঢাকায় ৪৭  টি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে। আজ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে বেশিরভাগ টিকা দেওয়া হয়েছে। 

এখানে আজ ১ হাজার ৬১৫ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। ঢাকায় বিএএফ বঙ্গবন্ধু মেডিকেল সেন্টারে সর্বনিম্ন টিকা দেওয়া হয়েছিল। এখানে আজ ৭০ জনকে করোনার বিরুদ্ধে টিকা দেওয়া হয়েছে।স্বাস্থদফতর সূত্রে জানা গেছে, আজ সন্ধ্যা সাড়ে। টা পর্যন্ত সারাদেশে ৫৭ লাখ ৭০ হাজার ১৯৮ জন লোক করোনার টিকা দেওয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন। এখন পর্যন্ত, সারা দেশে ৮৯৪ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে এবং এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলিও রিপোর্ট করা হয়েছে।
 

আরও পড়ুন: ফেসবুক থেকে কীভাবে উপার্জন করবেন

সূত্র : প্রথমআলো

Leave a Reply