৮ম অষ্টম শ্রেণির ১৯ তম সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর | ৮ম শ্রেণির ১৯তম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান

৬ষ্ঠ/৭ম/৮ম/৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট ১৯ তম সপ্তাহের সমাধান /উত্তর

১৯ তম সপ্তাহের ৬ষ্ঠ,৭ম, ৮ম, ৯ম শ্রেণির এসাইনমেন্ট ২০২১

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় ছাত্র ও ছাত্রী বন্ধুরা, কেমন আছেন সবাই? আসা করি সবাই ভালো আছেন। বরাবরের মতো, প্রতি সপ্তাহে আপনার জন্য  ১৯ তম অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ৬ষ্ঠ,৭ম,৮ম,৯ম ও ১০ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশের পরে, আমরা অবিলম্বে ষষ্ঠ,৭ম, অষ্টম, নবম শ্রেণির উত্তর ২০২১ দিচ্ছি। আজকের পোস্টে, আমি তোমাদের ষষ্ঠ,৭ম,৮ম,৯ম শ্রেণির ১৯তম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট প্রশ্ন ও উত্তর শেয়ার করবো। ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম ও ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ১৯তম সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট।

Covid-19 মহামারীর কারণে এবছরের জুলাই মাসের শেষের চলমান নির্ধারিত কাজ (এসাইনমেন্ট) কার্যক্রম স্থগিত করা হয় এবং পরবর্তীতে  অগাস্ট মাসের ১১ তারিখে পূণরায় এ্যাসাইনমেন্টের কার্যক্রম শুরু করা হয়। ২০২১ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থীদের মধ্যে পড়াশোনার ধারা বজায় রাখার জন্য পূণরায় ৬ষ্ঠ,৭ম,৮ম ও ৯ম শ্রেণির বিভিন্ন বিষয়ের উপর এসাইনমেন্ট গ্রহন করার প্রক্রিয়া চলতে থাকবে।

আরো পড়ুন-

৮ম শ্রেণির ১৯তম সপ্তাহের ইসলাম শিক্ষা এ্যাসাইনমেন্ট সমাধান উত্তর, অষ্টম শ্রেণির ১৯ তম সপ্তাহ অ্যাসাইনমেন্ট, ৮ম শ্রেণির ১৯তম সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট, ৮ম শ্রেণির ১৯তম সপ্তাহের এ্যাসাইনমেন্ট

৮ম শ্রেণির ১৯তম সপ্তাহের ইসলাম এসাইনমেন্ট উত্তর সমাধান – Class 8 19th week Islam assignment answer 2021

এসাইনমেন্ট শিরোনামঃ ব্যক্তি জীবনে হযরত “সুলাইমান (আ) ও হযরত মুসা (আ) এর জীবনাদর্শের অনুসরণীয় দিক সমূহ- এ বিষয়ে ৩০০ শব্দের মধ্যে একটি নিবন্ধ লিখ।
 
সংকেত:
১। আদর্শ জীবনচরিত পাঠের গুরুত্ব
২। হযরত সুলাইমান (আ) এর যেসব গুণ অনুসরণীয় তার তালিকা
৩। হযরত মুসা (আ) এর জীবনের বিভিন্ন মোজেজার তালিকা
৪। হযরত মুসা (আ) এর জীবনী থেকে প্রাপ্ত শিক্ষা
Make Money Online

১৯ তম সপ্তাহের ইসলাম অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর

তারিখ: –/—/২০২১ ইং।
বরাবর, প্রধান শিক্ষক __,ঢাকা।
বিষয়: ব্যক্তি জীবনে হযরত “সুলাইমান (আ) ও হযরত মুসা (আ) এর জীবনাদর্শের অনুসরণীয় দিক সমূহ।
জনাব,
বিনতি নিবেদন এই যে , আপনার আদেশ নং বা.উ.বি.৩৫৫-১ তারিখ: –/—/২০২১ ইং অনুসারে উপরােক্ত বিষয়ের উপর আমার স্বব্যখ্যাত প্রতিবেদনটি নিন্মে পেশ করলাম।
আখলাক আরবি শব্দ খুলুকুন এর বহুবচন। যার অর্থ চরিত্র বা স্বভাব। ইসলামি শাস্ত্র ও আইন অনুযায়ী আখলাক দুই প্রকার। যথা –
• আখলাকে হামিদাহ
• আখলাকে যামিমা
আখলাকে হামিদাহঃ
মানব জীবনের উত্তম গুণাবলিকে আখলাকে হামিদাহ বা প্রশংসনীয় চরিত্র বলে। যেমন – ধৈর্য, সততা, দেশপ্রেম, সমাজসেবা প্রভৃতি।
আমার ভিতরে আখলাকে হামিদার যে গুণগুলো বিদ্যমানঃ
• সর্বদা সত্য কথা বলি
• সময়ের কাজ সময়ে সম্পন্ন করি
★বড়দের সম্মান করে চলি
• কারো ক্ষতি করি না
★অন্যের সম্পদে তার অনুমতি ছাড়া হাত দেই না
• বাবা – মার কথা মেনে চলি
• বাবা মার সাথে সদ্ব্যবহার করি
★ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলি
★সৃষ্টিকর্তাকে ভয় করি
■ ওয়াদা রক্ষা করি
■ দুঃস্থদের সাহায্য করি
★পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকি
পিতা মাতার প্রতি করণীয় পাচটি আচরণঃ
১। পিতা – মাতার প্রতি সদ্ব্যবহারঃ
আমি আমার পিতা – মাতার সাথে কখনো খারাপ ব্যবহার করি না। তাদের সাথে সর্বদা সৎ ব্যবহার করি। পিতা – মাতা আমাদের জন্ম দিয়েছেন এবং আমাদেরকে অনেক কষ্ট করে লালন – পালন করেন যে কারণে তাদের সাথে সদ্ব্যবহার করা উচিত।
২। পিতা – মাতার আদেশ – নিষেধ মেনে চলাঃ
পিতা – মাতা সর্বদায় তাদের সন্তানের মঙ্গল কামনা করেন। তারা কোন কিছু থেকে নিষেধ করলে সেটা সন্তানের মঙ্গলের জন্যই করেন এবং কোন বিষয়ে আদেশ দিলে সন্তানের মঙ্গলের জন্যই আদেশ দেন৷ এই, কারণে আমি সর্বদা তাদের আদেশ মেনে চলার চেষ্টা করি।
৩। পিতা – মাতার কাজে সাহায্য করাঃ
পিতা – মাতা ও সন্তানের মঙ্গল এর কথা ভেবে সারাদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে। আমি যদি সুযোগ পাই তাহলে তাদের ছোটখাটো কাজে সাহায্য করার চেষ্টা করি, যাতে তাদের কষ্ট কম হয়।
৪। পিতা – মাতার প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়াঃ
পিতা–মাতা পৃথিবীতে সন্তানের সবথেকে আপনজন। তাদেরকে সম্মান করা এবং তাদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া যে কোন সন্তানের জন্য অত্যাবশ্যকীয়। তাই আমি আমার পিতা–মাতাকে শ্রদ্ধা করি।
৫। পিতা মাতার সেবা করাঃ 
একজন সন্তান অসুস্থ হলে পিতা–মাতা হয়ে পড়ে এবং তাদের সর্বোচ্চ সেবা করে তাদেরকে সুস্থ করার চেষ্টা করেন। তাই যখন পিতা মাতা অস্থির হয়ে মাতা অসুস্থ হয় তখন আমি তাদের সেবা করে সুস্থ করে তোলার চেষ্টা করি।
আত্মীয় স্বজনের প্রতি করণীয় ৫ টি আচরণঃ
১. যোগাযাগ রক্ষা করা: আত্মীয়রা পরস্পরের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করবে। এমনকি কেউ বিচ্ছিন্ন থাকলেও তার সঙ্গে অন্যরা যোগাযোগ রক্ষা করবে। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘প্রকৃত আত্মীয়তার সম্পর্ক রক্ষাকারী সেই যে ব্যক্তি তার আত্মীয় তার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেও সে তা রক্ষা করে চলে। ‘(সহিহ বুখারি, হাদিস: ৫৯৯১)
২. ভালো আচরণ করা: পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘মা–বাবার সঙ্গে উত্তম আচরণ করো, আর উত্তম আচরণ করো নিকটাত্মীয়ের সঙ্গে। ‘(সুরা: নিসা, আয়াত: ৩৬)
৩. অভাবগ্রস্ত হলে সহযোগিতা করা: অভাবগ্রস্ত আত্মীয়–স্বজনের সহযোগিতার তাগিদ দিয়ে রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘কোনো মিসকিনকে সহযোগিতা করলে দুটি দান করলে শুধু দানের সওয়াব আর আত্মীয়কে সওয়াব—দান ও আত্মীয়তা রক্ষা। ‘(সুনানে নাসায়ি, হাদিস: ২৫৮২)
৪. মেহমানদারি করা: মেহমানদারি সাধারণ মুসলমানের অধিকার। আত্মীয় হলে তা আরো দৃঢ় হয়। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি আল্লাহ ও পরকালে বিশ্বাস করে সে যেন মেহমানকে সম্মান করে। ‘(সহিহ বুখারি, হাদিস: ৬১৩৮)
৫. অসুস্থ হলে সেবা করা: আত্মীয়–স্বজন অসুস্থ হলে তাকে দেখতে যাওয়া এবং খোঁজখবর নেওয়া আবশ্যক। কেননা রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘ক্ষুধার্ত ব্যক্তিকে আহার করাও, রোগীর শুশ্ৰূষা করো এবং বন্দিদের মুক্ত করো। ‘(সহিহ বুখারি, হাদিস: ৫৩৭৩)।
প্রতিবেদকের নাম: —
রোল নং : ০–
প্রতিবেদনের ধরন: প্রাতিষ্ঠানিক,
প্রতিবেদনের শিরোনাম: ব্যক্তি জীবনে হযরত “সুলাইমান (আ) ও হযরত মুসা (আ) এর জীবনাদর্শের অনুসরণীয় দিক সমূহ
প্রতিবেদন তৈরির স্থান: —
তারিখ: –/—/২০২১ ইং।
Make Money Online

 

আরও পড়ুন –
 
বিশেষ সতর্কতা: উপরোক্ত নমুনা উত্তরগুলো দেওয়ার একমাত্র উদ্দেশ্য হল, শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত বিষয়ের উপর ধারণা দেওয়া। ধারণা নেওয়ার পর অবশ্যই নিজের মত করে এসাইনমেন্ট লিখতে হবে। উল্লেখ্য যে, হুবহু লেখার কারণে আপনার উত্তর পত্রটি বাতিল হতে পারে। এ সংক্রান্ত কোন দায়ভার Dorbinnews24 -এর নয়।
 
আমাদের কাজের মধ্যে কোন প্রকার ভুল ত্রুটি দেখা গেলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানান। প্রতি সপ্তাহের সকল বিষয়ের অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন। আমাদের কাছ থেকে ন্যূনতম সাহায্য পেয়ে থাকলে আপনাদের অন্যান্য বন্ধুদের সাথে ওয়েবসাইটটিকে ফেসবুকে শেয়ার দিতে পারেন।
 
ঘরে বসে অনলাইনে কিভাবে টাকা উপার্জন করবেন ফ্রীতে –How to make money online from home CLICK HERE IT’S FREE
 
আরো পড়ুন

Leave a Reply