বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার মিরপুর টেস্টের দ্বিতীয় দিনে বেশি একটা সুবিধা করে উঠতে পারছেনা টাইগাররা।

ক্যারিবীয়দের তালুবন্দি টাইগাররা, শতকের আগেই নেই ৪ উইকেট

দুরবিন নিউজ২৪,dorbinnews24,Bangla News, bangla News paper,Bangla All News paper List,bangla khobor,Bollywood,hindi movie,new movie 2021,tamil movie

 

বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে মিরপুর টেস্টের দ্বিতীয় দিনে টাইগাররা খুব একটা বেশি সুবিধা পেতে পারেনি। দিনের দ্বিতীয় অধিবেশনে, বাংলাদেশ বোলিংয়ে ঘুরে দাঁড়াতে সক্ষম হয়েছিল, তবে বাংলাদেশ নিজের ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায়। টাইগাররা সেঞ্চুরি শেষ করার আগে চার উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল।

ক্যারিবীয়দের প্রথম ইনিংসে প্রথম দুই শীর্ষস্থানীয় ব্যাটসম্যানকে ৪০৯ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ইনিংসের প্রথম ওভারেই ওপেনারের জাঁকজমকপূর্ণ সরকার গ্যাব্রিয়েলের শিকার হন। স্কোরিং খোলার আগে সৌম্য ক্যাচটি মাইয়ার্সের হাতে তুলে দিয়েছিলেন। এর পরে নাজমুল হোসেন শান্ত তামিমের সাথে দলের হেল্প নিতে ক্রিজে এসেছিলেন। কিন্তু গ্যাব্রিয়েল তাকে তার দ্বিতীয় ওভারে ড্রেসিংরুমে ফিরিয়ে দেয় মাত্র এক ওভারে। সৌম্য ক্যাচটি বোনারের হাতে তুলে দেন। মাত্র ৪ রান নিয়ে শান্ত ১১ রানের মাথায় ফিরে আসেন।

তারপরে মুমিনুল হক মাঠে তামিমের অংশীদার হন। এই জুটি থেকে প্রায় ৫৮ রান এসেছে। তবে তা বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। ১৫ তম ওভারে টাইগার অধিনায়ক কর্নওয়ালের দ্য সিলভারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন। মুমিনুলের ব্যক্তিগত ২১ রান তখন দল ছিল ৬৯।

অপর ওপেনার তামিম ইকবাল মাত্র দুই রানে ৪৪ রান করে ফিরলেন। শামী মোসালের হাতে আলহরি জোসেফের বলে ক্যাচ তুলে দেন তামিম।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ ১৮ ওভার শেষে ৪ উইকেটে ৭৫ রান করেছে।

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মিরপুর টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শুরুটা বাংলাদেশের পক্ষে খুব একটা খুশি হয়নি। তবে টাইগাররা দ্বিতীয় সেশনে কিছুটা দেরি করে ঘুরে দাঁড়াল। ১৪২ ওভার শেষে ক্যারিবীয়রা থাকতে পারত, কিন্তু ততক্ষণে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪০৯ রানে 


প্রথম অধিবেশন শুরুর পর থেকে ক্যারিবীয় স্কোরবোর্ডে রান যোগ করা হয়েছে। এই অধিবেশন শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১১৯ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩২৫ রান তোলে। প্রথম টেস্টের মতোই এনক্রুমা বোনার সেঞ্চুরি শেষ করার আগে ফিরেছিলেন। টানা দুই ইনিংসে সেঞ্চুরির খুব কাছাকাছি আসা সত্ত্বেও শেষ পর্যন্ত সেঞ্চুরির স্বাদ নিতে ব্যর্থ হন বোনার। আগের টেস্টে তিনি রান করেছিলেন। এবার তিনি ৯০ রানে ফিরিয়েছিলেন। দ্বিতীয় দিনের প্রথম অধিবেশনে, বোনার ২৮ রান করে মিরাজের ৯৯ তম শিকারে পরিণত হন। ওভারের তৃতীয় বলে তিনি মিঠুনকে ক্যাচ দিয়েছিলেন। জেমিনি সেই ক্যাচ নিতে ভুল করেননি।
২০৯ বল খেলার পরে, বনর ৯০ রানের ব্যক্তিগত স্কোর দিয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরে আসেন।

তারপরে দ্য সিলভা এবং আজমেরি জোসেফ দলের নেতৃত্ব গ্রহণ করলেন। দু’জনেই অর্ধশতক পেরিয়ে গেলেও কেউ সেঞ্চুরির স্বাদ নিতে পারেনি। তাইজুলের শিকার হওয়া দা সিলভা ৯৯ রানে ফিরেছিলেন। ৮২ রান করা জোসেফের করে জোসেফের উইকেট তুলেছিলেন।

এর পরে, জমেল ওয়ারিকন এবং শ্যানন গ্যাব্রিয়েল কোনও সুবিধা নিতে পারেনি। দুই দশক শেষ হওয়ার আগেই ফিরে গেলেন। শেষ পর্যন্ত ক্যারিবীয় ইনিংস থামে ৪০৯ রানে। প্রথম ইনিংস শেষে রহখিম কর্নওয়াল অপরাজিত।

আবু জায়েদ রাহি এবং তাইজুল বাংলাদেশের পক্ষে ৪ টি করে উইকেট নেন। এছাড়া মেহেদী হাসান মিরাজ ও সৌম্য সরকার একটি করে উইকেট নেন।

Leave a Reply